Free Ration – ফ্রিতে রেশনের দিন শেষ! রেশন নিয়ে নতুন নিয়ম আনল সরকার!

Free Ration – দেশে দরিদ্র মানুষের সংখ্যা নেহাত কম নয়। এমন বহু দরিদ্র মানুষ আছেন যারা জীবন-যাপন করতে গিয়ে রীতিমত হিমশিম খান। দু’বেলা দুমুঠো অন্ন জোগাড় করতে গিয়ে তাদের কাল ঘাম ছুটে যায়। কিন্তু পেটের তাগিদ তো মেটাতেই হবে, তাই যে করেই হোক অন্ন জোগাড় করার জন্য রোজকার করতে হয়। তবে আবার এমন অনেক পরিবার আছে যাদের পরিবারে পরিশ্রম করার মত কেউ থাকে না, সেই সব পরিবারগুলির একমাত্র ভরসা হল রেশন থেকে বিনামূল্যে (Free Ration) দেওয়া রেশন সামগ্রী।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

সরকারের তরফে রেশন কার্ডের মাধ্যমে বিনামূল্যে খাদ্য দ্রব্য দেওয়া হয়। দুস্থ গরিব মানুষের জীবনে এই রেশন কার্ডের গুরুত্ব অনেক। কারণ এই রেশন কার্ডের (Ration Card) মাধ্যমেই তাদের পরিবারের সকলের মুখে অন্য জোটে। দেশের কোটি কোটি মানুষ এই বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার ফলে উপকৃত হচ্ছেন। বিশেষ করে দরিদ্র ও নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের কাছে এই রেশন কার্ডের গুরুত্ব অপরিসীম।

আরও পড়ুন – PNB mpassbook – 1 ডিসেম্বর থেকে পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের এই সুবিধা বন্ধ হচ্ছে !

Free Ration পেতে সরকারের নতুন নিয়ম কি?

তবে এবার পশ্চিমবঙ্গ সরকার (Government of West Bengal) এই রেশন কার্ড নিয়ে বড় রকমের সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন। এবার থেকে আঙুলের ছাপ দিয়ে আর রেশন সামগ্রী তোলা যাবে না। রেশন কার্ড নিয়ে এবার বড় সিদ্ধান্ত নিল পশ্চিমবঙ্গের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। এবার থেকে চোখের মনির সাহায্যে রেশন থেকে খাদ্য দ্রব্য তুলতে হবে।

এতদিন বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রেশন দেওয়া হত। তবে এবার চোখের মনির সাহায্যে রেশন দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হতে চলেছে। রাজ্যের তরফ থেকে যাবতীয় রেশন দোকানে ইতিমধ্যেই নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে। অর্থাৎ এবার থেকে রেশনে খাদ্যদ্রব্য তুলতে চোখের মনি স্ক্যান করতে হবে।

চোখের মনি স্ক্যান করবে কিভাবে?

সরকারের ডেটাবেসে যে চোখের মণির ছবি রয়েছে, সেই মণির ছবি স্ক্যান করা হবে। এখন থেকে আঙুলের ছাপ না মিললেও সরকারের ডেটাবেসে থাকা চোখের মণির ছবির সঙ্গে নির্দিষ্ট গ্রাহকের চোখের মণির ছবি সব সময় মিলে যায়। তাই এবার চোখের মণি স্ক্যান করে মিলিয়েই রেশন দেওয়ার উদ্যোগ শুরু করা হবে। মূলত দুর্নীতি রুখতেই সরকারের তরফে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন – WB Scheme – রাজ্য সরকার ২ লাখ যুবক-যুবতীকে ৫ লাখ টাকা দেবে, হাতে আর ৭দিন সময়।

JoinJoin