Primary TET – সুখবর! প্রাথমিকে টেট পরীক্ষার জন্য,পাশাপাশি শূন্যপদ অনেকটাই বেড়েছে।

Primary TET – দীর্ঘ পাঁচ বছরের অপেক্ষার পর গত ১১ ডিসেম্বর ২০২২-এ প্রাথমিক টেট পরীক্ষা হয়েছিল। গত বছর প্রায় ৬ লক্ষ ৯০ হাজার আবেদনকারী আবেদন করেছিলেন, কিন্তু প্রায় ৬ লাখ ২০ হাজার পরীক্ষার্থী টেট পরীক্ষা (Primary TET Exam) দিয়েছিলেন। ২০২২ সালে প্রায় ১.৫ লক্ষ প্রার্থী টেট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছিলেন। কিন্তু এখনও অবধি এই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়নি। তবে পর্ষদ সভাপতি আগেই জানিয়েছিলেন ছয় মাস পরপর প্রাথমিক টেট পরিক্ষা নেওয়া হবে।

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

পর্ষদ সভাপতির কথা অনুযায়ী ২০২৩ সালের টেট পরীক্ষার (Primary TET) জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছিল। এবছরের প্রাথমিক টেট এর অনলাইন আবেদন প্রক্রিয়া ১৪ ই সেপ্টেম্বর ২০২৩ এ শুরু হয়েছিল এবং এই আবেদন প্রক্রিয়া ৮ অক্টোবর ২০২৩ এ শেষ হয়েছে। শুধু তাই নয় পর্ষদের তরফে প্রার্থীদের আবেদনপত্রের ভুল সংশোধন করার সুযোগও দেওয়া হয়েছে।প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ (WBBPE) ১০ ডিসেম্বর এই বছরের প্রাথমিক TET এর আয়োজন করতে চলেছে।

এবার প্রাথমিক টেট সংক্রান্ত এক বিরাট খবর সামনে এসেছে। পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের তথ্য অনুযায়ী এ বছর পরীক্ষার্থীর সংখ্যা গত বছরের থেকে প্রায় অর্ধেক হয়ে গেছে। এবারের প্রাইমারি টিচার এলিজিবিলিটি টেস্টের জন্য আবেদনের সংখ্যা ৫০ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। অর্থাৎ আবেদন সংখ্যা কমার পাশাপাশি শূন্যপদ অনেকটাই বেড়ে গেল।

আরও পড়ুন – Driving licence – ড্রাইভিং লাইসেন্স নিয়ে নতুন নিয়ম জারি করল কেন্দ্র ! আর দিতে হবে না টেস্ট।

Primary TET -এর আবেদন সংখ্যা হ্রাস পাওয়ার কারন ?

১) গত বছর ডিএলএড এবং বিএড প্রশিক্ষিত সকল প্রার্থীরা ২০২২ সালের ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত TET পরীক্ষার জন্য আবেদন করেছিলেন। তবে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী এ-বছর শুধুমাত্র ডিএলএড পাস প্রার্থীরাই আবেদন করেছেন। তাই আবেদনের সংখ্যা অনেক কমে গেছে।

২) গত বারের টেট পরীক্ষায় (Primary TET Exam) সমস্ত প্রার্থী পাস করেছিলেন তাদের মধ্যে অনেকেই এবারের টেট পরিক্ষার জন্য আবেদন করেননি, সেই কারনেও আবেদনের সংখ্যা কমেছে।
৩) এই বছর টেট পরিক্ষার আবেদন মূল্য ৫০০ টাকা করা হয়েছিল, তাই অনেকে মনে করছেন অতিরিক্ত আবেদন মুল্যের কারনেও অনেকে আবেদন করেননি।

পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ (West Bengal Board of Primary Education) ইতিমধ্যেই ওয়েবসাইটে পরীক্ষার মডেল প্রশ্নপত্র এবং সমস্ত বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেছে। গত বছরের মতো পর্ষদ এবারও পরীক্ষার নিরাপত্তায় কোনো ফাঁক রাখতে চায় না। এছাড়াও বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এ-বছর শূন্য পদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে। যদিও টেট পরীক্ষার সাথে নিয়োগের সরাসরি সম্পর্ক নেই জানিয়েছে পর্ষদ, তবুও শূন্যপদ বৃদ্ধি পেলে টেট পরীক্ষায় পাশ করা প্রার্থীরা ইন্টারভিউ দিলে চাকরির সুযোগ অনেকটাই বেশি পাবেন।

আরও পড়ুন – Eshram card – ই-শ্রম কার্ড থাকলে মিলবে আপনার একাধিক সুবিধা, কি কি সুবিধা জানুন।

বিঃদ্রঃ- উপরের খবর গুলো কেবলমাত্র কাজের খবরের উদ্দেশ্য। Wbnews24.in কোন নিয়োগ সংস্থা নয় এবং নিয়োগ পরিচালনা করে না। Wbnews24.in খবর সংগ্রহ করে প্রকাশিত করে। আমরা সর্বদা চেষ্টা করি নির্ভুল আপডেট প্রকাশ করার। তবুও কিছু ক্ষেত্রে (যেমন শূন্যপদের সংখ্যা, আবেদন জমা দেওয়ার শেষ তারিখ, পরীক্ষার তারিখ, আবেদন মূল্য, ইত্যাদি) আমাদের অবচেতন মনে কোন ভুলের জন্য আমরা দায়ী নই। আবেদন কারী প্রার্থীদের জানানো হচ্ছে তারা Official Website গুলির Notification বা বিজ্ঞপ্তি ভালো করে পড়ে তবেই আবেদন করুন। আরও পড়ুন আমাদের Disclaimer.

JoinJoin